ঢাকা, বাংলাদেশ | মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ

শিরোনামঃ

   ‘স্যার’ না বলায় সাংবাদিকের ওপর চট‌লেন প্রিজাইডিং অফিসার    নতুন ঠিকানা পেলো সড়ক দুর্ঘটনায় মা হারানো জাহিদ    আজ আইপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ার    দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়ে ২৭৮৪ ডলার    গত দুই সপ্তাহে গাজায় ৯ লাখের বেশি ফিলিস্তিনি বাস্তুচ্যুত    খাগড়াছড়ি সদর দীঘিনালা ওপানছড়িতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছে    আজ অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং ঢাকায় আসেন    রাইসির হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের কোনো হাত নেই: মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী    নরসিংদীতে যাত্রীর ছুরিকাঘাতে ইজিবাইক চালক খুন, যাত্রী আটক    ‘৪৭ ডিগ্রি তাপমাত্রা, রেড অ্যালার্ট’ জারি ভারতের দিল্লিতে    রাইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান    পুত্র সন্তানের মা হয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতম    এভারেস্টের পর প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে লোৎসে জয় করলেন বাবর    আন্তর্জাতিক চা দিবস আজ    কাকে বিয়ে করছেন দক্ষিণী অভিনেত্রী আনুশকা?

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ছুরিকাঘাতে মামাতো ভাই ছালেহ আহম্মেদকে (৩৭) হত্যার অভিযোগ উঠেছে দুই ফুপাতো ভাই ও তাদের পরিবারের বিরুদ্ধে। উপজেলার দেড়কোটা গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার মরদেহ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত ছালেহ আহম্মেদ চৌদ্দগ্রাম উপজেলার দেড়কোটা গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। আহতরা হলেন নিহতের বাবা আবুল কাশেম ও তাঁর ছোট ভাই আব্দুল মতিন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দেড়কোটা গ্রামের বেপারী বাড়ির বাসিন্দা আবুল কাশেমের সঙ্গে সম্পত্তি নিয়ে ভাগনে জামাল উদ্দিন ও মহিন উদ্দিনের বিরোধ চলে আসছে। এর জেরে সোমবার সন্ধ্যায় উঠান ঝাড়ু দেওয়াকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের মধ্যে ঝগড়া হয়। এ সময় জামাল উদ্দিন ও মহিন উদ্দিনসহ অন্যরা লোকজন ছালেহ আহম্মেদকে ছুরিকাঘাত করেন। আবুল কাশেম ও তাঁর ছোট ছেলে আব্দুল মতিনকে পিটিয়ে জখম করেন।
তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে চিকিৎসক ছালেহ আহম্মেদকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের বাবা আবুল কাশেম বলেন, ‘জামাল উদ্দিন ও মহিন উদ্দিন সম্পর্কে আমার ভাগনে। সম্পত্তি নিয়ে তাঁদের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। সন্ধ্যায় আমার প্রতিবন্ধী মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস উঠান ঝাড়ু দেওয়ার সময় জামাল উদ্দিন, মহিন উদ্দিন ও তাঁদের মা মনোয়ারা বেগম মেয়েকে মারধর করেন। এ সময় ছালেহ আহম্মেদ বাধা দিতে এলে তাঁরা ছুরি দিয়ে তাঁর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করেন। আমি ও আমার ছোট ছেলে এগিয়ে গেলে তাঁরা আমাদেরকেও পিটিয়ে জখম করেন। তাঁদের ছুরিকাঘাতে আমার ছেলে ছালেহ আহম্মেদ মারা গেছেন।’
চৌদ্দগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আবুল হাসেম সবুজ বলেন, ‘ছালেহ আহম্মেদের তলপেটে ও হাতে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে হাসপাতালে আনার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।’

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ত্রিনাথ সাহা বলেন, ‘সম্পত্তি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। রাতে নিহতের বাবা আবুল কাশেম বাদী হয়ে জামাল উদ্দিন, মহিন উদ্দিন ও তাদের মা মনোয়ারা বেগম এবং জামালের স্ত্রী শাহেনা আক্তারের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ মনোয়ারা ও শাহেনাকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ অপর আসামিদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।’

 

এনএএন টিভি


প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও
কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।