ঢাকা, বাংলাদেশ | মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ

শিরোনামঃ

   দেশের বাজারে আরও বেড়েছে স্বর্ণের দাম    ঢাকাসহ রাতে ১০ অঞ্চলে ঝড়ের আভাস    নরসিংদীতে ৩ বছরের শিশুর মৃতদেহ উদ্ধারসহ ৩ জন আটক    হজ ক্যাম্পে কোনো ধরনের হয়রানি ও ভোগান্তির স্বীকার হননি –ধর্মমন্ত্রী    বেনজীরের ৭ পাসপোর্টের সন্ধান মিলল    আজকে দেশের তাপমাত্রা    ঈদযাত্রায় সড়কে নিহত হয়েছেন ২৩০ জন: বিআরটিএ    আগামী ১০ জুলাই গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি    পটুয়াখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু    এ সফর ছিল সংক্ষিপ্ত, কিন্তু অত্যন্ত ফলপ্রসূ –প্রধানমন্ত্রী    ফেনীতে খুন হওয়া সুমন ছিলেন মা-বাবার শেষ অবলম্বন    পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে বাড়ল লেনদেনও    ঈদের মাসে ২৩ দিনে প্রবাসী আয় এল ২০৫ কোটি ডলার    বিয়ের জন্য সাঁজতে পার্লারে গিয়ে তরুণী নিহত সাবেক প্রেমিকের গুলিতে    অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে বহুল আলোচিত তিন সাঁওতাল হত্যা মামলার নারাজির ওপর শুনানি ফের পেছাল।
গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নাজমুল হাসানের বিচারিক আদালতে মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) এই মামলার নারাজির ওপর শুনানির দিন ধার্য ছিল।

এর আগে গত ১০ই জুলাই নারাজির ওপর শুনানির দিন ধার্য ছিল। এনিয়ে নারাজির ওপর তিন দফা শুনানি পেছাল।

এদিকে, তিন সাঁওতাল হত্যার বিচার, বসতবাড়ীতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর, লুটপাট, ক্ষতিপূরণ ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে সাঁওতাল-বাঙালির যৌথ উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। ওইদিন দুপুর ১২টা থেকে দুই ঘন্টাব্যাপি গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল আদালত সংলগ্ন সড়কে মানববন্ধন করা হয়। সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি পুনরুদ্ধার সংগ্রাম কমিটির আয়োজনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি পুনরুদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. ফিলিমন বাস্কের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন শেখ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সুফল হেমব্রম, কোষাধ্যক্ষ প্রিসিলা মুরমু, আদিবাসী নেত্রী সুচিত্রা তৃষ্ণা মুরমু, শারমিন মার্ডি, সদস্য ময়নুল ইসলাম, আনিছুর রহমান ও বিপুল রবি দাশ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, হত্যাকান্ডের ৬ বছর পেরিয়ে গেলেও ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আজও গ্রেপ্তার করা হয়নি। মামলার মূল ১১জন আসামীকে বাদ দিয়ে চার্জশীট দেওয়া হয়েছে। এর বিরুদ্ধে নারাজি করা হলেও তদন্তের নামে কালক্ষেপন করে যাচ্ছে সংশ্লিষ্টরা। এতসব তথ্য প্রমাণ থাকা স্বত্বেও কেন ? তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছেনা তা বোধগম্য নয়।

অনতিবিলম্বে তিন সাঁওতাল হত্যার বিচার, বসতবাড়ীতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর, লুটপাট, ক্ষতিপূরণ ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার সহ হত্যাকান্ডে জড়িতেদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। পাশাপাশি সাঁওতাল-বাঙালির বাপ-দাদার পৈত্রিক সম্পত্তি ফেরতের দাবী জানান বক্তারা।

উল্লেখ্য, গত ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর চিনিকল কর্তৃপক্ষ পুলিশ সঙ্গে নিয়ে সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ইক্ষুখামারে আখ কাটতে যান। এসময় সাঁওতালরা তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি দাবী করে বাধা দিলে পুলিশ সাঁওতালদের ওপর গুলি চালায়। এতে শ্যামল হেমব্রম, মঙ্গল মার্ডি ও রমেশ টুডু নামে তিন সাঁওতাল মারা যায়। সেইসাথে সাঁওতালদের বসতবাড়ীতে অগ্নিমংযোগ, ভাংচুর, লুটপাট করা হয়। সেই থেকে দাবী বাস্তবায়নে সাঁওতাল-বাঙালি যৌথভাবে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে আসছেন।

 

 


প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও
কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।