ঢাকা, বাংলাদেশ | রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ

শিরোনামঃ

   চট্টগ্রামে কোটা সংস্কার আন্দোলনে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত দুই তরুণ    কোটা সংস্কার আন্দোলন ঘিরে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যুর খবর    আন্দোলনকারীদের পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে জামায়াত    নরসিংদীতে কোটা আন্দোলনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে স্কুলশিক্ষার্থী নিহত    নাটোরে মিছিলের প্রস্তুতির সময় ১৮ স্কুলছাত্রকে পুলিশে দিলেন প্রধান শিক্ষক    জুলাইয়ের ২১, ২৩ ও ২৫ তারিখের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত    ছাত্রলীগ-কোটা আন্দোলনকারিদের সংঘর্ষ, ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ    কোটা আন্দোলনে রেসিডেনসিয়াল কলেজের শিক্ষার্থী ফারহান নিহত    শ্রীমঙ্গলে চাঞ্চল্যকর আইনজীবী হত্যাকাণ্ডে জড়িত ২জন গ্রেপ্তার    চট্টগ্রাম রেগুলেশন বাতিলের ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবিতে মিছিল    চুয়াডাঙ্গায় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ; ছাত্রলীগের হামলা    আজ বন্ধ থাক‌বে ভারতীয় ভিসা সেন্টার    উত্তরায় গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী নিহত    টাঙ্গাইলে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া    মিরপুর ১০ নম্বরে সংঘর্ষ চলাকালীন পুলিশ বক্সে আগুন

উপজেলা আওয়ামী লীগ সমর্থীত রায়পুরাবাসীর প্রাণপ্রিয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব ফেরদৌছ কামাল জুয়েল এর আনারস মার্কা রায়পুরার প্রতিটি এলাকায় ব্যাপক গনজোয়ার উঠেছে। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় ধাপে আগামী ২৯মে নরসিংদীর রায়পুরা ও শিবপুর দুটি উপজেলায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
রায়পুরা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আফজাল হোসাইন বলেন, রায়পুরা উপজেলা আওয়ামী লীগ সমর্থীত প্রার্থী নারায়নগঞ্জ মহাকুমা প্রতিষ্ঠাতা ছাত্রলীগের আহবায়ক,ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ভাষা সৈনিক, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত একেএম বজলুর রহমান এর সুযোগ্য সন্তান লে: জে: মজিবুর রহমান এর ছোট ভাই আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল একজন প্রতিবাদী সৎসাহসী আর্দশবান রাজনীতি পরিবারের যোগ্য নেতা হিসেবে রায়পুরা উপজেলা সহ সমগ্র জেলা জুড়ে ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। তিনি পাড়াতলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি,পাড়াতলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত একেএম বজলুর রহমান ও শাহানারা বেগম ফাউন্ডেশনের পরিচালক চর এলাকার কৃতি সন্তান আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল।
রায়পুরা উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক ইমান উদ্দিন ভুইয়া বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শ বুকে ধারন করে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য ছাত্র জীবনে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছে। ৯০’র স্বৈরাচার বিরোধী গণ আন্দোলনের রাজপথের লড়াকু সৈনিক। ছাত্র জীবন থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত তার এই দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে তিনি বহুবার রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। রাজনীতির পাশাপাশি স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত একেএম বজলুর রহমান ও শাহানারা বেগম ফাউন্ডেশনের পরিচালক হিসেবে আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল এলাকার বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে এবং তিনি সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত আছেন। চরাঞ্চল সহ উপজেলা সমর্থকবৃন্দ সহ বিভিন্ন এলাকায় তার বিশাল ভোট ব্যাংক রয়েছে ।
রায়পুরা উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী বলেন, র্দীঘদিন ক্ষমতায় বসে নিজেদের আধ্যিপত্য বিস্তার করতে একটি চক্র ক্ষমতা অপব্যবহার কারীরা বিগত দিনে চরাঞ্চলন সহ রায়পুরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মারামারি, হানাহানি, বাড়ীঘর ভাংচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ একনায়কতন্ত্র সহ সকল সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয় সাধারন ভোটাদেরকে জিম্মি করে বিভিন্ন নির্বাচন আসলে ভোট নিয়ে ক্ষমতার চেয়ারে বসে সুবিধা ভোগ করে ভয়ভিতি দেখিয়ে রামরাজ্যত্ব কায়েম করেন। তারা এ নির্বাচনে প্রতিবাদ করার জন্য সুযোগ করে দিতে পারলে সাধারন ভোটারা সারা উপজেলায় প্রতিহত করতে ৮০ ভাগ মানুষ পরির্বতনের লক্ষ্যে দুর্নীতি,সন্ত্রাস মুক্ত স্মার্ট উপজেলা পরিষদ গঠন করতে আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল এর সমর্থনে আনারস মার্কা বিজয় নিশ্চিত করতে প্রস্তুত রয়েছে।

রায়পুরা পৌর আওয়ামী লীগ তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক আশিক আফজাল সজিব বলেন, রায়পুরা বাসী এ নির্বাচনে পরির্বতন চাই, নব্য আওয়ামী লীগ নাম ধারীদেরকে আর দেখতে চাই না ভোটারদের পছন্দের প্রার্থী রায়পুরা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হয়ে এলাকায় আনারস মার্কা সমর্থন আদায়ের জন্য উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দিন-রাত গণসংযোগ সহ উঠান বৈইঠক করে যাচ্ছে আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল । উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ, উঠান বৈঠককালে তিনি তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরে বলেন, রায়পুরাতে উন্নত শিক্ষার জন্য বিশ^বিদ্যালয়, উন্নত স্বাস্থ্য সেবার জন্য একটি আধুনিক হাসপাতাল, শিল্পকারখানা প্রতিষ্ঠা করতে গ্যাস সংযোগ, রাস্তাঘাট ও মেঘনা নদীতে ব্রিজ নির্মানসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার আরও উন্নয়ন করতে হবে। প্রভাবশালীদের কূটকৌশলের কাছে ত্যাগী নেতাকর্মীসহ সাধারন মানুষ দীর্ঘদিন ধরে খেসারত দিয়ে আসছে, তাদের জিম্মি দশা থেকে মুক্ত করতে আনারস মার্কা ভোট দিয়ে প্রতিহত করে হয়রানী মুক্ত একটি সুন্দর জিবন গঠন করতে চাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী গরোনার রাজনীতিতে যুক্ত রয়েছেন। বর্ণাঢ্য রাজনীতি ব্যক্তিত্বের অধিকারী আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল । রায়পুরা উপজেলার সাধারণ মানুষের মতামতের প্রাধান্য দিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে মতপ্রকাশ করেছেন। আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল দীর্ঘদিন ধরে এলাকাবাসীর পাশে থেকে বিপদে আপদে তাদের পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন । শুধু অর্থ দিয়ে নয় মানুষের যে কোন বিপদে তাদের পাশে থেকেছেন। এলাকার মানুষের এতটুকু সেবা করতে পারলেই যেন আত্মতৃপ্তি পান এই নেতা। এলাকার সাধারন মানুষ যখন যেভাবে তাকে ডাক দিয়েছে তিনি তাদের ডাকে ছুটে গেছেন। ইতোমধ্যে এলাকার সাধারন মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছে। এই মহানুভব রাজনীতিবিদ জনপ্রতিনিধি হলে তার সেবার পরিধি আরও বৃদ্ধি পাবে এমন চিন্তা ভাবনা রায়পুরার সাধারন ভোটারদের ইচ্ছায় আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে তাদের রায় নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়ে উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন উন্নয়নে এলাকাবাসীকে সহযোগিতা করতে পারবে। তাই রায়পুরাবাসীর ইচ্ছা ও ভালোবাসাকে প্রধান্য দিয়ে আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আনারস মার্কা ভোটে লড়ছেন তিনি। রায়পুরা উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে যত জন প্রার্থী হয়েছেন তাদের মধ্যে আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল আনারস মার্কার আলোচিত হয়ে দিন দিন ভোটারদের সমর্থন আদায় করতে সক্ষম হয়েছে। এ নির্বাচনে আনারস মার্কা প্রতিটি এলাকায় সাধারন ভোটারদের মাঝে ব্যাপক গনজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল বলেন, চর এলাকার ঐহিত্যবাহি সাহেব বাড়ীর কৃতি সন্তান, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর রাজনীতিক সহচর বার বার কারা নির্যাযিত সৎ সাহসী বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা ভাষা সৈনিক স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত প্রয়াত একেএম বজলুর রহমান এর সুযোগ্য সন্তান লে: জেনারেল মো: মুজিবুর রহমানের ছোট ভাই আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল। রায়পুরা সহ চরাঞ্চলে বিশাল কর্মীবাহিনী ভোট ব্যাংক রয়েছে। এ নির্বাচনে প্রভাবশালী নেতাদের একনায়েকতন্ত্র জিম্মিদশা থেকে মুক্তি দিতে হাই কমান্ড থেকে তৃনমূল পর্যায়ে ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে । এ নির্বাচনে অন্য নির্বাচনের মত প্রভাবশালীরা জোর করে শীল মেরে বিজয় ছিনিয়ে নিতে পারবে না। ৮০ভাগ অবহেলিত বঞ্চিত পরিক্ষিত ত্যাগী রায়পুরা উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী সহ সর্বস্তরের জনগন আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েলকে প্রকাশ্যে ও গোপনে সমর্থন দিয়েছে।
এ নির্বাচনে রায়পুরা উপজেলার ৮০ভাগ অবহেলিত বঞ্চিত ত্যাগী পরিক্ষিত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে দূর্নীতি মুক্ত স্মার্ট উপজেলা পরিষদ গঠন করতে হবে। রায়পুরাতে উন্নত মানের আধুনিক হাসপাতাল, উন্নতমানের শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়, নান্দনিক স্টেডিয়াম, রাস্তাঘাট ও ব্রিজ নির্মান সহ গ্যাস সংযোগ দিয়ে শিল্পাঞ্চল প্রতিষ্ঠা করতে হবে। বিশেষ করে অবহেলিত চরাঞ্চলে প্রশাসনিক উপজেলা পরিষদ স্থাপন, মেঘনা নদীতে ব্রিজ,হাসপাতাল, কলেজ রাস্তাঘাট সহ প্রতিটি এলাকায় ব্রিজ ও সংযোগ সড়ক স্থাপন করে যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো উন্নত করতে হবে। এ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর কন্যা সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আর্দশের ৮০ ভাগ অবহেলিত আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত ত্যাগী নেতাকর্মীদেরকে জিম্মী দশা থেকে মুক্ত করে স্বাধীনভাবে রাজনীতি করার সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। এ নির্বাচনে নব্য আওয়ামী লীগ নামধারী কালো টাকার মালিকদেরকে রায়পুরা থেকে বয়কট করতে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের জনগন নিজেদের মধ্যে বিরোধ সহ সকল দ্বিধাদ্বন্দ ভুলে গিয়ে ঐক্যবন্ধ ভাবে আওয়ামী লীগের সমর্থীত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীকে বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। তিনি আরো জানান, প্রভাবশালীদের কোট কৌশলের কাছে লোভে পড়ে আমরা বার বার ভুল করার কারনে ত্যাগী নেতাকর্মী সহ সাধারন মানুষ র্দীঘদিন যাবৎ খেসারত দিতে হচ্ছে। রায়পুরাতে অনেক উন্নয়ন মুলক কাজ করতে হবে।
আমি দীর্ঘদিন রাজপথে থেকে সকল আন্দোলন সংগ্রামে লড়াই করেছি। আমি সাধ্যমত মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করছি। এবারের উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে রায়পুরা বাসীর আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাচ্ছে। সবার ভালোবাসা ও দোয়া নিয়ে আমি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। বিজয়ী হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যহত রাখতে কাজ করে যাবো।
প্রসঙ্গত, আলহাজ¦ ফেরদৌছ কামাল জুয়েল রায়পুরা উপজেলার পাড়াতলী উইনিয়নের আলীনগর গ্রামের স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক একেএম বজলুর রহমান উল্লেখ্য, তৃতীয় ধাপের তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৯ মে নরসিংদী রায়পুরা ও শিবপুর সহ দেশের ১২২ উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে।


প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও
কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।