ঢাকা, বাংলাদেশ | বুধবার, ২৪ জুলাই, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ

শিরোনামঃ

   চট্টগ্রামে কোটা সংস্কার আন্দোলনে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত দুই তরুণ    কোটা সংস্কার আন্দোলন ঘিরে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যুর খবর    আন্দোলনকারীদের পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে জামায়াত    নরসিংদীতে কোটা আন্দোলনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে স্কুলশিক্ষার্থী নিহত    নাটোরে মিছিলের প্রস্তুতির সময় ১৮ স্কুলছাত্রকে পুলিশে দিলেন প্রধান শিক্ষক    জুলাইয়ের ২১, ২৩ ও ২৫ তারিখের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত    ছাত্রলীগ-কোটা আন্দোলনকারিদের সংঘর্ষ, ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ    কোটা আন্দোলনে রেসিডেনসিয়াল কলেজের শিক্ষার্থী ফারহান নিহত    শ্রীমঙ্গলে চাঞ্চল্যকর আইনজীবী হত্যাকাণ্ডে জড়িত ২জন গ্রেপ্তার    চট্টগ্রাম রেগুলেশন বাতিলের ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবিতে মিছিল    চুয়াডাঙ্গায় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ; ছাত্রলীগের হামলা    আজ বন্ধ থাক‌বে ভারতীয় ভিসা সেন্টার    উত্তরায় গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী নিহত    টাঙ্গাইলে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া    মিরপুর ১০ নম্বরে সংঘর্ষ চলাকালীন পুলিশ বক্সে আগুন

সম্প্রতি কোরিয়া পেননিসুলার কাছে আরো একটি মিসাইল ছোড়া যায় এমন একটি সাবমেরিন নিয়ে এসেছে আমেরিকা।

তারই জবাবে, জাপানের খুব কাছে সমুদ্রে দুইটি ব্যালেস্টিক মিসাইল নিক্ষেপ করেছে উত্তর কোরিয়া।

দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপান দুই দেশই এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছে।

প্রায় ৪০০ কিলোমিটার অতিক্রম করেছে দুইটি মিসাইল। জাপান এবং কোরিয়ার মাঝে জাপান সাগরে গিয়ে পড়েছে মিসাইল দুইটি।

আমেরিকা এই ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে।

গত বেশ কয়েকবছর ধরে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্ক ক্রমশ খারাপ হয়েছে।

মাঝে ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্পর্কের উন্নতির চেষ্টা করলেও শেষ পর্যন্ত তা বেশিদিন কার্যকর হয়নি।

উত্তর কোরিয়া একের পর এক মিসাইল পরীক্ষা করে যাওয়ার ফলে আমেরিকা গত সপ্তাহে কোরিয়া সাগরে একটি সাবমেরিন মোতায়েন করেছে।

ওই সাবমেরিন থেকে পরমাণু অস্ত্র নিক্ষেপ করা যায়। তার উত্তরে ঠিক এভাবেই দুইটি ব্যালেস্টিক মিসাইল ছুড়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিল উত্তর কোরিয়া। আবার সোমবার তা করা হলো।

বস্তুত, দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে এখনো যুদ্ধে লিপ্ত উত্তর কোরিয়া। কারণ দুই দেশের মধ্যে কখনোই কোনো শান্তি চুক্তি সই হয়নি।

কিন্তু বাস্তবে যুদ্ধ বন্ধ করা গেছে। দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আমেরিকা কোরিয়া সাগরে একের পর এক সামরিক মহড়া করেছে।

যা নতুন করে উত্তেজনার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। উত্তর কোরিয়া এর তীব্র বিরোধিতা করেছে এবং একের পর এক মিসাইল নিক্ষেপ করেছে।

এবছর তথাকথিত যুদ্ধ জয়ের অনুষ্ঠান পালন করবে উত্তর কোরিয়া। তারা মনে করে ১৯৫৩ সালে দক্ষিণ কোরিয়াকে তারা যুদ্ধে হারিয়েছিল।

অনুষ্ঠান উপলক্ষে উত্তর কোরিয়ায় যেতে পারেন চীনের প্রতিনিধি দল। যদি তা হয়,

তা হলে কোরিয়া পেনিনসুলার রাজনীতি আরো জটিল হবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞেরা।

আরও পড়ুন :

 

 

এনএএন টিভি


প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও
কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।