ঢাকা, বাংলাদেশ | মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ

শিরোনামঃ

   দেশের বাজারে আরও বেড়েছে স্বর্ণের দাম    ঢাকাসহ রাতে ১০ অঞ্চলে ঝড়ের আভাস    নরসিংদীতে ৩ বছরের শিশুর মৃতদেহ উদ্ধারসহ ৩ জন আটক    হজ ক্যাম্পে কোনো ধরনের হয়রানি ও ভোগান্তির স্বীকার হননি –ধর্মমন্ত্রী    বেনজীরের ৭ পাসপোর্টের সন্ধান মিলল    আজকে দেশের তাপমাত্রা    ঈদযাত্রায় সড়কে নিহত হয়েছেন ২৩০ জন: বিআরটিএ    আগামী ১০ জুলাই গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি    পটুয়াখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু    এ সফর ছিল সংক্ষিপ্ত, কিন্তু অত্যন্ত ফলপ্রসূ –প্রধানমন্ত্রী    ফেনীতে খুন হওয়া সুমন ছিলেন মা-বাবার শেষ অবলম্বন    পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে বাড়ল লেনদেনও    ঈদের মাসে ২৩ দিনে প্রবাসী আয় এল ২০৫ কোটি ডলার    বিয়ের জন্য সাঁজতে পার্লারে গিয়ে তরুণী নিহত সাবেক প্রেমিকের গুলিতে    অভিন্ন নদীর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আন্তঃবিভাগ ফুটবল খেলায় গোল নিয়ে বিতর্ক ও কথা কাটাকাটির জের ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের দুই শিক্ষার্থীকে সাইকেলের চেন দিয়ে মারধর করে নাক-মুখ ফাটিয়ে দিয়েছে ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৫ টার দিকে বিশ্বিবদ্যালয় স্টেডিয়াম গেটে এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তঃবিভাগ ফুটবল টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনাল চলছিল বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়াম মাঠে। ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ এবং ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের মধ্যে খেলাটি চলছিল। এ ম্যাচের নির্ধারিত সময়ে দুই পক্ষের কেউ গোল দিতে পারেনি। এর ফলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। টাইব্রেকারে ফার্সি বিভাগ পাঁচটি শটের মধ্যে চারটি গোল দেয় এর বিপরীতে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ চারটির মধ্যে তিন গোল করে।

ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের বাকি একটি কিক গোলপোস্টের ভেতরে ঢুকলে দুইপক্ষেরই স্কোর সমান সমান হয়। এমন পরিস্থিতিতে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের পঞ্চম শট গোলবারে লেগে ওপরে উঠে যায়। এতে ফার্সি বিভাগের গোলকিপার ও খেলোয়াড়েরা আনন্দ উদযাপন করতে থাকেন। পরে বলটি মাটিতে পড়ে পুনরায় গোলবারের দিকে আসতে লাগলে ওই বিভাগের অন্য খেলোয়াড় বলটি শট মেরে বাইরে পাঠিয়ে দেন। আর এর আগেই ফার্সি বিভাগের গোলকিপার গোলপোস্ট থেকে বের হয়ে যায়। ফার্সি বিভগের গোলকিপারের অনুপস্থিতিতে তাদের অন্য খেলোয়াড় বলটি ধরায় কার্যত ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের গোলটি হয়নি। এনিয়ে দুপক্ষের মধ্যে বিতর্ক শুরু হলে রেফারি কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি। এক পর্যায়ে রেফারি ম্যাচটি স্থগিত করে। এরপর ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরা মাঠ থেকে বের হয়ে স্টেডিয়াম গেটে এলে ফার্সি বিভাগের কয়েজন শিক্ষার্থী তাদেরকে সাইকেলের চেন দিয়ে মারধর এবং কিলঘুষি দেয়। এতে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের দুইজন শিক্ষার্থী আহত হয়।
ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী আব্দুর রহমান বলেন, খেলা নিয়ে ঝামেলা শুরু হলে আমরা ৪-৫ জন স্টেডিয়ামের মূল ফটকে খেলোয়াড়দের রিসিভ করতে যাবার চেষ্টা করলে ‘তোরা এখানে কেন?’ বলে ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সোহরাওয়ার্দী হল সহ-সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন শাকিলের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন সাইকেলের চেন খুলে হামলা শুরু করে। এতে ২ জন আহত হয়।

ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আশরাফ উজ জামান বলেন, বিতর্কিত বিষয়টি নিয়ে আমরা বসবো। তখন এটি সমাধান হবে।

এবিষয়ে ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ওসমান গণি বলেন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরাই আগে লাঠি নিয়ে এসেছে। এরপর দুইপক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে একপর্যায়ে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের একজন আরেকজনের দ্বারা আঘাত পেলে তারা আহত হয়।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. আসাবুল হক বলেন, আমি আহত ছেলেটির সাথে কথা বলেছি। তার মাথায় ও মুখে আঘাতের নমুনা দেখেছি। তারা এখনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে খেলা নিয়ে যে ঝামেলা হয়েছে তা টুর্নামেন্ট কমিটি বরাবর অভিযোগ দিলে তারা ব্যবস্থা নিবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা তারেক নূর বলেন, খেলাটির ফলাফল স্থগিত রাখা হয়েছে। মারামারির বিষয়টি সমাধান করে খেলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

 


প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও
কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।